Breaking News
A huge collection of 3400+ free website templates JAR theme com WP themes and more at the biggest community-driven free web design site
Home / এক্সক্লুসিভ সংবাদ / ইতিবাচক ব্যাটিংয়ে সন্তুষ্ট অধিনায়ক

ইতিবাচক ব্যাটিংয়ে সন্তুষ্ট অধিনায়ক

Loading...

ইতিবাচক ব্যাটিংয়ে সন্তুষ্ট অধিনায়ক

 

 

নিউজিল্যান্ডে গিয়ে প্রথম ম্যাচ। যে কোনো দলের জন্য বড় পরীক্ষার নাম। সে হিসেবে এই ম্যাচে ৭৭ রানে পরাজয়টা আর যাই হোক, নিন্দনীয় নয়। বিশেষ করে বাংলাদেশের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানরা যেভাবে চেষ্টা করেছেন, তা উল্টো প্রশংসা পেতে পারে।

 

দিনশেষে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা বলছিলেন, ব্যাটসম্যানদের যেমন প্রচেষ্টা ছিলো, তাতে রানটা আরেকটু কম হলেই জয় পাওয়া সম্ভব ছিলো। বিশেষ করে ফিল্ডিংটা খুব জড়তাগ্রস্ত ছিলো- বললেন মাশরাফি।

 

সংবাদ সম্মেলন থেকে বিডিনিউজ ডট কম মাশরাফিকে উদ্ধৃত করে এই খবর জানিয়েছে। মাশরাফি ফিল্ডিং নিয়ে বলেছেন, ‘আমাদের ফিল্ডিং অনেকটাই ছিল জরাগ্রস্ত। অনেক দুই-তিন নিয়েছে ওরা, যেগুলো চেক দিতে পারতাম। ২০ রানের মতো ওখানেই বেশি হয়েছে। বোলিংয়ে শর্ট বল বেশি করেছি। ২৮০-৩০০ রান এখানে হবেই। বোলিং-ফিল্ডিং ভালো হলে আমরা ৪০ রান কম দিতে পারতাম। সেক্ষেত্রে শুরুতে দ্রুত উইকট হারানোর পরও আমাদের সুযোগ থাকত। বাড়তি ওই রানটাই আমাদের ভুগিয়েছে।’

 

 

 

রানটা বেশি হয়ে যাওয়ার আফসোস তো আছেই, পাশাপাশি টপ অর্ডার শুরুতেই ধসে পড়াও একটা সমস্যা হিসেবে দেখছেন মাশরাফি, ‘যদি ছোট ছোট জায়গা আমরা ঠিক করতাম, তাহলে আরেকটু ভালো হতো। যেটা বললাম, বড় হতাশার জায়গা ছিল ফিল্ডিংয়ে আমরা হতোদ্যম ছিলাম। ফিল্ডিংয়ে একটু ভালো করলে বোলাররাও হয়ত একটু অনুপ্রাণিত হতো। বোলিং-ফিল্ডিং বাজে হওয়াতেই ৪০-৫০ রান বেশি হয়েছে। এই রান তাড়া করতে হলে শুরুতে দ্রুত রান করতে হবে। উল্টো শুরুতে উইকেট পড়েছে।’

 

আপাতদৃষ্টিতে এটিকে ভুলে যাওয়ার মতো একটি ম্যাচ মনে হলেও সামনের পথচলার জন্য অধিনায়ক খুঁজে পাচ্ছেন কিছু ইতিবাচক দিকও, ‘ভালো লেগেছে যে এত কিছু হওয়ার পরও আমরা ইতিবাচক থাকতে পেরেছি ব্যাটিংয়ে। শুরুতে দ্রুত উইকেট হারালেও পরে মোটামুটি একটা রান করেছি। সামনে যদি আমরা ওদের ২৮০-৩০০ রানে আটকে রাখতে পারি, এই ম্যাচ তাহলে বিশ্বাস জোগাবে যে আমরা সেই রান তাড়া করতে পারি।’

 

১৬৭ রানে ৬ উইকেট হারানো বাংলাদেশের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন মুশফিকুর রহিম ও মোসাদ্দেক হোসেন। জুটির অর্ধশতক হওয়ার পরই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মুশফিকের। সঙ্গীর অভাবে দলকে বেশি দূর নিতে পারেননি মোসাদ্দেক। মাশরাফি বলছিলেন, ‘মুশফিক ও সৈকত (মোসাদ্দেক) যখন ছিল, এক পর্যায়ে ৮৪ বলে ১৪০ লাগত। টি-টোয়েন্টি ম্যাচের মতো। তখন মুশফিকের চোট সমস্যা করল। না হলে হয়ত আমরা ৩০০-৩১০ পর্যন্ত গিয়ে তার পর কিছু করার চেষ্টা করতাম।’

 

তবে জয়ের এই পথ থেকে বাংলাদেশ আসলে ছিটকে গেছে ল্যাথাম ও মুনরোর ব্যাটিংয়ে। সেটাই মাশরাফি বলছিলেন, ‘আমরা জানতাম, (মার্টিন) গাপটিল ও মুনরো অনেক মারতে পারে। উইলিয়ামসন ও ল্যাথাম অনেকটা উইকেট আগলে খেলে; কিন্তু ল্যাথাম নিজের সেরা খেলাটা খেলেছে। আর মানরো আমাদের কাছ থেকে ম্যাচ বের করে নিয়ে গেছে। আমরা ওদের ৩০০-৩১০ রানে আটকে রাখতে পারলে ম্যাচটি অন্যরকম হতে পারত। ৮১ রানে ৪ উইকেট হারানোর পরও আমরা ২৬০ ছাড়াতে পেরেছি। সাকিব ও মুশি দারুণ ব্যাট করছিল, শেষে সৈকতও ভালো করেছে। ৩০০ রানে আটকে রাখতে পারলে তাই সম্ভাবনা ছিল।’

 

স্কো  র  কা  র্ড

 

n টস: নিউজিল্যান্ড (ব্যাটিং)

 

নিউজিল্যান্ড

 

ব্যাটসম্যান            রান বল ৪  ৬

 

গাপটিল ক সৌম্য ব মুস্তাফিজ   ১৫ ১৯ ১  ১

 

লাথাম ক মুশফিক ব মুস্তাফিজ   ১৩৭   ১২১      ৭     ৪

 

উইলিয়ামসন ক মুশফিক ব তাসকিন  ৩১ ৩৬ ৫     ০

 

ব্রুম এলবিডব্লু সাকিব     ২২ ৩২ ০  ০

 

নিশম এলবিডব্লু সাকিব    ১২ ১৩ ২  ০

 

মুনরো ক তাসকিন ব সাকিব   ৮৭ ৬১ ৮  ৪

 

রনকি ব তাসকিন       ৫  ৬  ০  ০

 

স্যান্টনার অপরাজিত      ৮  ৭  ০  ০

 

সাউদি অপরাজিত        ৭  ৫  ১  ০

 

অতিরিক্ত (বা-৬, লেবা-৮, ও-৩) ১৭

 

মোট: ৫০ ওভারে       ৩৪১/৭

 

n বোলিং

 

মাশরাফি ১০-০-৬১-০, মুস্তাফিজ ১০-০-৬২-২, তাসকিন ৯-০-৭০-২, সাকিব ১০-০-৬৯-৩, সৌম্য ৪-০-২৫-০, মোসাদ্দেক ৭-০-৪০-০।

 

বাংলাদেশ

 

তামিম ক স্যান্টনার ব নিশম ৩৮ ৫৯ ৫  ০

 

ইমরুল ক রনকি ব সাউদি  ১৬ ২১ ২  ১

 

সৌম্য ক উইলিয়ামসন ব নিশম  ১  ৮  ০  ০

 

মাহমুদউল্লাহ ক রনকি ব নিশম  ০  ৩  ০  ০

 

সাকিব ক সাউদি ব ফার্গুসন ৫৯ ৫৪ ৫  ২

 

মুশফিক আহত অবসর     ৪২ ৪৮ ৩  ০

 

সাব্বির ক বৌল্ট ব ফার্গুসন    ১৬ ১১ ০  ১

 

মোসাদ্দেক অপরাজিত     ৫০ ৪৪ ৫  ৩

 

মাশরাফি ক ব্রম ব স্যান্টনার ১৪ ১০ ০  ১

 

তাসকিন ক রনকি ব ফার্গুসন   ২  ১১ ০  ০

 

মুস্তাফিজ ব সাউদি       ০  ১  ০  ০

 

অতিরিক্ত (বা-১, লেবা-৬, ও-১৮, নো-১)      ২৬

 

মোট: ৪৪.৫ ওভারে     ২৬৪/১০

 

n বোলিং:

 

বোল্ট: ৯-০-৪৩-০, সাউদি ৯.৫-২-৬৩-২, ফার্গুসন ৯-০-৫৪-৩, নিশম ৭-১-৩৬-৩, স্যান্টনার ১০-০-৬১-১

 

n ফল: নিউজিল্যান্ড ৭৭ রানে জয়ী

 

n ম্যান অব দ্য ম্যাচ: টম ল্যাথাম

Check Also

ফাঁস হল রুবেল নীলার সেক্স ভিডিও

Loading... ফাঁস হল রুবেল নীলার সেক্স ভিডিও     ফাঁস হল রুবেল নীলার সেক্স ভিডিও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *